মুক্তিপণ আদায়কালে ৩ জলদস্যু আটক

লক্ষ্মীপুরে পাঁচ জেলেকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়কালে তিন জলদস্যুকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মজুচৌধুরীর হাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা তাদের আটক করে।

আটক জলদস্যুরা হলেন- ভোলার চরজঙ্গলা এলাকার হানিফ মিয়ার ছেলে কামাল, রায়পুর উপজেলার চর কাচিয়া গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে জাকির হোসেন ও ছায়েদ মিয়ার ছেলে শিপন।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নৌ পুলিশ সদস্যরা মেঘনা নদীতে নিয়মিত টহলে যান। এ সময় সদর উপজেলার চররমনী মোহন ইউনিয়নের মেঘনা নদীর দ্বীপ চরমেঘাতে পাঁচ জেলেকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করা হচ্ছে বলে খবর পাওয়া যায়। তাৎক্ষণিক পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে জেলেদের উদ্ধার ও জলদস্যুদের হাতেনাতে আটক করে। তাদের কাছ থেকে একটি দা, দুইটি লাইট, একটি দড়ি, চারটি কিরিচ, একটি লাঠি ও একটি হ্যাজাক লাইট উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার হওয়া জেলেরা হলেন- ভোলার দৌলতখাঁ উপজেলার মিজির হাট গ্রামের জামাল হোসেন, ভবানিপুর গ্রামের নীরব মাঝি, তজুমুদ্দিন উপজেলার সোনাপুর গ্রামের মিজান মাঝি, দেওয়ানপুর গ্রামের অহিদ উল্ল্যা ও ভোলাইকান্দি গ্রামের মিরাজ মাঝি।

মজুচৌধুরীর হাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ অচিন্ত কুমার দেবনাথ জানান, জেলেদের অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করা হচ্ছে বলে খবর পেয়ে অভিযান চালানো হয়৷ এতে হাতেনাতে তিন জলদস্যুকে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক করা হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, জলদস্যুদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। তাদেরকে শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) সকালে আদালতে সোপর্দ করা হবে।