ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন নেতাকর্মীরা

আওয়ামী লীগের ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ শাখার ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে দলে দলে যোগ দিচ্ছেন নেতাকর্মীরা। আজ শনিবার সকাল থেকেই ব্যানার ফেস্টুন ও xvনেতার ছবি সংবলিত প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে স্লোগানে স্লোগানে মিছিল শোভাযাত্রা করে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশস্থলে হাজির হতে দেখা যায় তাদের।

এ সময় নেতাকর্মীরা ‘আজকের এই দিনে মুজিব তোমার মনে পড়ে’, ‘শেখ হাসিনা ভয় নাই, রাজপথ ছাড়ি নাই’, ‘মুজিবের বাংলায় রাজাকারের ঠাই নাই’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকেন।

আওয়ামী লীগের গুরুত্বপূর্ণ এই দুটি ইউনিটের সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মাদক, দুর্নীতি ও অবৈধ সম্পদের বিরুদ্ধে সরকারের সাম্প্রতিক শুদ্ধি অভিযানে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের এই দুটি ইউনিটের অনেক নেতাই ধরাশায়ী হয়েছেন। ফলে ধারণা করা হচ্ছে, এবারের সম্মেলনে স্বচ্ছ ধারার রাজনীতির ধারক বাহকরাই সামনের সারিতে জায়গা পাবেন।

মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক নাজির হোসেন এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘সম্মেলন মানেই দলকে নতুন করে সাজানো, বিষয়টি এ রকম নয়। এটি হচ্ছে নতুন-পুরাতনের মিলনমেলা। যারা দীর্ঘদিন কাজে ঝিমিয়ে পড়েছেন তাদেরকে উজ্জীবিত করাই এই সম্মেলনের মুখ্য উদ্দেশ্য।

টানা তৃতীয়বার সরকার গঠনের কারণে নেতাকর্মীদের মধ্যে এক ধরনের আলস্য কাজ করছে। আশা করি, এই সম্মেলনের মাধ্যমে সেই আলস্য কেটে যাবে।’

সম্মেলনে যোগ দিতে আসা সূত্রাপুর থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আমিনুল ইসলামের সঙ্গে কথা হয় এনটিভি অনলাইনের। তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে সম্মেলন মানেই হচ্ছে নতুন কিছুর প্রত্যাশা। যেহেতু ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগকে আন্দোলন সংগ্রামে সব সময় সক্রিয় থাকতে হয়, সেহেতু এই সম্মেলনের মাধ্যমে আমরা সেই আন্দোলন সংগ্রামের মাঝে একটা আনন্দমুখর পরিবেশ তৈরি করি।’

ওয়ারী থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাকিব হাসান সোহেল বলেন, ‘উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে শেখ হাসিনা সরকারের বিকল্প নেই। আর সরকার গঠনের জন্য চাই শক্তিশালী নেতৃত্ব, সেই নেতৃত্ব গঠনের জন্যই সম্মেলন। এ সম্মেলনে ত্যাগীরা স্থান পাবেন, এটাই কামনা করি।’